শুক্রবার, এপ্রিল ১৬, ২০২১



সদ্য সংবাদ

  •   বাংলাদেশের সব খবর সহ আন্তর্জাতিক, বিনোদন, খেলার খবর ও অন্যান্য সব ধরণের খবর সবার আগে অনলাইনে পেতে চোখ রাখুন "টিএনএন" এ। আমাদের সাথে যুক্ত হতে পারেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও।

লাইফস্টাইল
গরম- যার আবির্ভাবও হয় যেমন দ্রুত, তেমনি এর স্থায়ীত্বকালও হয় দীর্ঘ। সময়ের সাথে সাথে এর আগমন ও অবস্থান দুটিই মানুষের জীবনে অসহনীয়। তবে এই অসহনীয় গরমেও নিজেকে সতেজ ও প্রাণবন্ত এবং শীতল রাখতে প্রয়োজন ঠান্ডা জাতীয় খাবার। আর তার জন্য আপনার ভালো থাকার সঙ্গী হতে পারে ফ্রিজ। যা প্রতিটি পরিবারের আস্থা, ভরসা আর শান্তির একমাত্র কেন্দ্রস্থল। যেটি খাবারকে রাখে সতেজ ও টাটকা। খাবার সতেজ রাখতে প্রয়োজন সঠিক তাপমাত্রা। অর্থাৎ খাবার ভালো থাকার জন্য সেই তাপমাত্রাতেই রাখতে হবে। কিন্তু বাজারে থাকা অনেক ফ্রিজে নেই সঠিকভাবে খাবার সংরক্ষণের নির্দেশনা। যার ফলে বাজারে থাকা অনেক ফ্রিজ নিয়েও রয়েছে নানান অভিযোগ যেমন- খাবার সতেজ থাকে না, সবজিগুলো কেমন শুকিয়ে যায়, রান্না করা খাবার গন্ধ হয়ে যায় কিংবা এক খাবারের গন্ধ অন্য খাবারে মিশে যায় এবং ফ্রিজে রাখা খাবারেও মিলছে না স্বাদ! এমন অবস্থায় খাবার সতেজ রাখার শতভাগ গ্যারান্টি নিয়ে বাজারে এসেছে দেশীয় ইলেকট্রনিক্স জগতের শীর্ষ ব্যান্ড মিনিস্টার ফ্রিজ। বিশ্বমানের প্রযুক্তি দিয়েই সম্পূর্ণ দেশেই তৈরি একটি পণ্য। বিভিন্ন দামে বিভিন্ন ধরনের ফ্রিজ তৈরি করে থাকে মিনিস্টার। মিনিস্টারের রয়েছে স্পেসিফিকেশন, আকৃতি, ডিজাইন। যার প্রতিটি পণ্যের বৈশিষ্ট্যের উপর নির্ভর করেই দামের ভিন্নতা রয়েছে। একই সাথে প্রতিটি ফ্রিজে যুক্ত করেছে এমন সব প্রযুক্তি যা সঠিক তাপমাত্রা- হিমায়িত খাবারের ভিটামিন এবং দীর্ঘ সময় সংরক্ষণ করার জন্য উপযুক্ত তাপমাত্রা বজায় রাখে। সম্পূর্ণ অটোমেটিকভাবে ফ্রিজের তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে প্রতিটি ফ্রিজ। একই সাথে ৬৬% এনার্জি সেভিং- এনার্জি সেভিং কমপ্রেসর ব্যবহার করে, ফোমিংয়ের ঘনত্ব ৩৬ কেজি পার মিটার কিউ (জার্মানি কেমিক্যাল) নিয়ে আসা হয়েছে এবং এনার্জি সেভিং রেফ্রিজারেন্ট (আর ৬০০ এ) ব্যবহার করে। যার ফলে প্রতিটি ফ্রিজ হয় বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী। এছাড়াও এটা বিল্ট ইন ভোল্টেজ স্ট্যাবিলাইজার ফ্রিজ। তাই আলদা স্ট্যাবিলাইজারের প্রয়োজন হয় না। অন্যদিকে ন্যানো টেকনোলজি ও সিক্স-এ কুলিং সিস্টেম থাকায় খাবার দ্রুত ঠান্ডা হয়। ফ্রিজ সহজে পরিস্কার করার জন্য ব্যবহার করা হয়েছে অ্যান্টি-ফাঙ্গাল ডোর গ্যাসকেট; যেন ডোর ব্যাকটেরিয়া ও ফাঙ্গাসমুক্ত থাকে। এছাড়া ধাক্কা বহন করার জন্য উচ্চ টেম্পার্ড গ্লাস ডোর ব্যবহার করা হয়েছে যেন সহজেই ফ্রিজের দরজার কোনো ক্ষতি না হয়। টেম্পার্ড গ্লাস ডোর হওয়ায় বছরের পর বছর ব্যবহারেও মরিচা ধরে না। মিনিস্টার ফ্রিজ কম্প্রেসারে দিচ্ছে ১২ বছরের গ্যারান্টি। সাধারণত যেকোনো ফ্রিজের কম্প্রেসার নিয়েই বিভিন্ন সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়, সেখানে মিনিস্টার ক্রেতাদের সুবিধার্থে দিচ্ছে এই গ্যারান্টি। আপনার জীবনকে আরও আরামদায়কদায়ক করে তুলবে এই ফ্রিজ। একই সাথে পরিবারের চাহিদা পূরণের জন্য ছোট বা বড়সহ সব আকারের পণ্য রয়েছে এই ব্যান্ড্রে। বিভিন্ন বিভাগে বিভিন্ন ধরনের শুকনো খাবার, তরল খাবার বা স্টোরেজ খাবার সংরক্ষণ করা যায়। অধিকাংশ ফ্রিজে দেখা যায়, মাংস এক মাসের বেশি রাখা যায় না। কিন্তু মিনিস্টারের প্রতিটি ফ্রিজেই উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহারের ফলে মাংস সতেজ থাকে অনেক দিন। এছাড়াও তিন দরজার নতুন ফ্রিজটিতে রয়েছে দুধ রাখার আলাদা সু-ব্যবস্থা। এতে দুধ দীর্ঘদিন সংরক্ষণ করে রাখা যায়। একই সাথে যেমন রাখা হয় ঠিক তেমনই থেকে যায়। একই সাথে সতেজ খাবার ও শরীরের সুস্থতার গ্যারান্টির পাশাপাশি এই ফ্রিজ খাবারের টেস্ট রাখবে শতভাগ। তাই এই গরমে কোয়ালিটি ও সার্ভিসের রাজা মিনিস্টার ফ্রিজই হোক প্রতিটি পরিবারের খাবার ভালো রাখার সঙ্গী।

সর্বশেষ

ফেসবুকে আমরা