মঙ্গলবার, নভেম্বর ২৯, ২০২২
The Report
ডিজিটাল ঋণ সেবার ইকোসিস্টেম তৈরি করতে ডানা ফিনটেক ও মার্চেন্ট বে-এর মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষর

ডিজিটাল ঋণ সেবার ইকোসিস্টেম তৈরি করতে ডানা ফিনটেক ও মার্চেন্ট বে-এর মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষর

টিএনএন ডেস্ক
প্রকাশের সময় : February 09, 2022 | বিশেষ সংবাদ

[ঢাকা, ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০২২]- তৈরি পোশাক খাতের ক্ষুদ্র ও মাঝারি (এসএমই) কারখানাগুলোকে ঋণ প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে সহজ ও ঝামেলাহীনভাবে ডিজিটাল ঋণসেবা দিতে অংশীদারি চুক্তি করেছে ডানা ফিনটেক ও মার্চেন্ট বে। গত সোমবার এ চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। এই চুক্তিটির ফলে তৈরি পোশাক খাতের ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প-কারখানাগুলোর চলতি পুঁজি ঋণসহায়তা (ওয়ার্কিং ক্যাপিটাল ফাইন্যান্সিং) এবং ইনভয়েস ফাইন্যান্সিং–বিষয়ক (গ্রাহকদের কাছে থাকা বকেয়ার বিপরীতে দেওয়া ঋণ) আর্থিক সেবা পাওয়া সহজ হবে। এ ছাড়া ঋণ প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে অংশীদারত্বের ভিত্তিতে কারখানার শ্রমিকদেরও বিভিন্ন আর্থিক সুবিধার আওতায় আনা সম্ভব হবে।

চুক্তি অনুসারে, এমবেডেড ঋণ ইঞ্জিন প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান ডানা ফিনটেকের নিজস্ব ঋণ প্রদান পদ্ধতি ব্যবহার করে বিটুবি মার্কেটপ্লেস সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান মার্চেন্ট বে তৈরি পোশাক খাতের এসএমই ব্যবসায়ীদের ক্রেডিট স্কোর তৈরি করবে। এর মাধ্যমে ব্যবসায়ীরা সরাসরি সহযোগী ব্যাংকগুলোর কাছে এসএমই ঋণ ও ইনভয়েস ফাইন্যান্সের আবেদন করতে পারবেন। আর বিজনেস ক্রেডিট স্কোরিংয়ের মাধ্যমে ঋণ প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানগুলোও সহজে ডিজিটাল ঋণ দিতে পারবে। বিটুবি প্ল্যাটফর্ম মার্চেন্ট বে তৈরি পোশাক খাতের বিক্রয়, বিপণন ও ক্রয়াদেশ পরিচালনা করে থাকে। বর্তমানে প্রতিষ্ঠানটি তৈরি পোশাক খাতের তিন শতাধিক ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পকারখানার সঙ্গে যুক্ত আছে। ব্যাংক ও নেটওয়ার্ক অংশীদারদের জন্য এমবেডেড ঋণ প্রদানের প্ল্যাটফর্ম প্রদান করে ডানা ফিনটেক। আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো ডানার ডিজিটাল ক্রেডিট স্কোরিং এপিআই, বিএনপিএল ইঞ্জিন ও ডিজিটাল আন্ডাররাইটিং ইঞ্জিনের সুবিধা নিয়ে ডিজিটাল ঋণ ও বিএনপিএল সেবা দিয়ে থাকে।

বর্তমানে প্রতিষ্ঠানটি তিনটি নেটওয়ার্ক পার্টনার এবং দুটি বাণিজ্যিক ব্যাংকের সঙ্গে যুক্ত। চুক্তির বিষয়ে ডানা ফিনটেকের সিইও গাজী ইয়ার মোহাম্মদ বলেন, “বর্তমানে দেশের ৯০ শতাংশ ক্ষুদ্র ও মাঝারি (এসএমই) কারখানাগুলোর ক্রেডিট স্কোর এবং ফাইন্যান্সিয়াল ডকুমেন্ট না থাকার কারণে ব্যাংকগুলো থেকে ঋণ নিতে পারে না। অন্যদিকে, ডিজিটাল আন্ডাররাইটিং প্ল্যাটফর্ম না থাকা এবং ঋণ প্রদানের ক্ষেত্রে প্রক্রিয়া ব্যয় বেশি হওয়ার কারণে ব্যাংকগুলোও এসএমই খাতকে ঋণ প্রদান করতে পারে না।

এই দুটি সমস্যার কারণে এসএমই কোম্পানিগুলো প্রয়োজনের সময়ে অর্থের যোগান পেতে সমস্যায় পড়ে। মার্চেন্ট বে-এর সাথে অংশীদারিত্বের মাধ্যমে আমরা তৈরি পোশাক খাতের এসএমই ব্যবসায়ীদের ক্রেডিট স্কোর তৈরি করতে পারবো এবং আমাদের 'এমবেডেড লেন্ডিং ইঞ্জিন' এর মাধ্যমে ব্যবসায়ীরা সরাসরি সহযোগী ব্যাংকগুলোর কাছে এসএমই ঋণ ও ইনভয়েস ফাইন্যান্সের সুযোগ পেতে সক্ষম হবে। আমাদের লক্ষ্য হচ্ছে এই ঋণ পাওয়ার পুরো প্রক্রিয়ার সময়টাকে কয়েক মাস থেকে কমিয়ে কয়েক মিনিটে নিয়ে আসা।”

এ বিষয়ে মার্চেন্ট বে-এর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আবরার হোসেন সায়েম বলেন, “ডানা ফিনটেকের সঙ্গে চুক্তি করতে পেরে আমরা অত্যন্ত আনন্দিত। মার্চেন্টবে ও ডানা মিলিতভাবে বাংলাদেশের তৈরি পোশাক খাতের এসএমই কোম্পানিগুলোর জন্য সহজ একটা সমাধান নিয়ে আসবে। এসএমই কোম্পানিগুলোকে বর্তমানে ঋণ ও ইনভয়েস ফাইন্যান্স নিয়ে যে দীর্ঘ পদ্ধতির মধ্য দিয়ে যেতে হয় আমরা সেটিকে রিয়েল টাইম প্রসেসে পরিনত করতে বদ্ধপরিকর। মার্চেন্ট বে বাংলাদেশের তৈরি পোশাক খাতে ডিজিটাল বিপ্লবের যে সূচনা করেছে সেটি এই চুক্তির মাধ্যমে একটি নতুন মাত্রা পেল”